টাইম ম্যানেজমেন্ট- মফিজুল ইসলাম

প্রচলিত একটা কথা আছে যে “সময় ও শ্রোত কারো জন্য অপেক্ষা করে না” ৷ এ কথাটা দিয়ে প্রকৃত পক্ষে সময়ের মূল্য বোঝানো হয়েছে ৷ আমাদের জীবনে সময় খুব অল্প তবে এই অল্প সময়কে সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে অল্প সময়ে অনেক ভালো কিছু করা সম্ভব ৷ জীবনে যারা সফল তারা প্রত্যেকে সময়ের সঠিক ব্যবহার করেছেন ৷ আসলে আমি কথা বলতে চাচ্ছি টাইম ম্যানেজমেন্ট নিয়ে ৷ ✔ টাইম ম্যানেজমেন্ট আসলে কি? “টাইম ম্যানেজমেন্ট” হ’ল কীভাবে আপনার সময়কে নির্দিষ্ট ক্রিয়াকলাপের মধ্যে ভাগ করতে হয় তা সংগঠিত এবং পরিকল্পনার প্রক্রিয়া। ✔ সময়কে অনেক বেশি কিভাবে কাজে লাগানো যায়?

★ সময়কে কাজে লাগানোর সবচেয়ে ভালো উপায় আমার কাছে মনে হয় পূর্ব পরিকল্পনা একটু বিস্তারিত বলি প্রতিদিনের কাজের রুটিন তার আগের দিন রাতে করে ফেলা যায় সময় সহ যে কোন কাজটা কখন করবো প্রত্যেকটা কাজের জন্য সময় নির্ধারণ করা ধারাবাহিকতা নির্ধারণ করা যেমন আমি একটা বিষয় পর্ব কখন পড়বো এবং কতক্ষণ পড়বো তা পূর্ব থেকে ঠিক করে রাখা..

★ সময়কে ভালোভাবে কাজে লাগাতে না পারার একটা বড় কারণ হচ্ছে অদক্ষতা যোগ্য ব্যক্তি একটা কাজ যত দ্রুত এবং সঠিকভাবে করতে পারবে, একজন অদক্ষ ব্যক্তি ঠিক একই কাজ করতে অনেক বেশি সময় প্রয়োজন ৷ এই সময়কে সঠিকভাবে কাজে লাগানোর জন্য দক্ষতা অর্জন করা একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়

★ সময়কে কাজে লাগাতে প্রথমেই কোথায় আমার সময় বেশি অপচয় হয় সেই দিকটা খুঁজে বের করতে হবে আর অপচয় হওয়ার সময়টকে নতুন একটা কাজের জন্য নির্ধারণ করতে হবে ৷

★ প্রত্যেকটা কাজের জন্য নিজেকে প্রফেশনাল মনে করা কারণ প্রফেশনাল মনে করলেই আপনি অল্প সময়ের মধ্যে সুন্দরভাবে কাজটা সম্পন্ন করতে পারবেন ৷

★ প্রত্যেকটা কাজ সময়মত করার জন্য আপনার স্মার্টফোনে আপনি রিমাইন্ডার দিয়ে রাখতে পারেন যেন প্রত্যেকটা কাজের শুরুতেই আপনার ফোনে রিমান্ডের মাধ্যমে আপনি জানতে পারে আপনার কাজ সম্পর্কে.. ★ নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস বাড়ানো কারণ আপনি আত্মবিশ্বাসের সাথে যখন কোন কাজ করবেন কাজটা দ্রুত সম্পন্ন হবে।

লেখক : মো. মফিজুল ইসলাম এম.এস.সি (বোটানি) কবি নজরুল সরকারি কলেজ

অন্যধারা/সাগর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here